সোনাগাজীতে আতশবাজির আগুনে তিন যুবলীগ কর্মী আহত

সোনাগাজীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও মুজিববর্ষ- ২০২০ উদযাপন উপলক্ষ্যে সারাদেশের ন্যায় বর্ণিল আতশবাজি প্রদর্শন করা হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আতশবাজির আগুনে তিন যুবলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। আহতরা হলো উপজেলা যুবলীগের সদস্য আবদুল মজিদ, চর চান্দিয়া ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মো: লিটন ও চর চান্দিয়া গ্রামের যুবলীগ কর্মী মাহমুদুল হাসান।

আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতরা জানায়, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ ২০২০ উপলক্ষ্যে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কর্তৃপক্ষ থেকে ৬০টি আতশবাজি প্রদর্শনের জন্য উপজেলা প্রশাসনকে দেয়। শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেবসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিকে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত দুই যুবক মো. সুমন ও মো. বাপ্পী আতশবাজিগুলো প্রদর্শন শুরু করেন।

প্রথমে ৮টি আতশবাজি সঠিক ভাবে ফোটানো হয়। ৯নম্বর আতশবাজিতে আগুন দেওয়ার পর সেটি দর্শক সারিতে ছিটকে পড়ে বিস্ফোরিত হয়। এসময় আতশবাজির আগুনে দর্শক সারিতে থাকা যুবলীগের তিনকর্মী আহত হন। উপস্থিত লোকজন আহতদেরকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

গতকাল রোববার সকালে হাসপাতালে গিয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিফটন আহত যুবলীগ কর্মীসহ ভর্তি থাকা রোগীদের খোঁজখবর নেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক সাদেকুল করিম বলেন, আতশবাজির আগুনে আহত তিনজনের মধ্যে দুইজনকে রাতেই প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। ভর্তি থাকা অপরজনকে গতকাল দুপুরে চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব বলেন, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের লোকজনের অসর্তকতার কারণে আশতবাজি ফুটানোর সময় ছিঁটকে দর্শক সারিতে পড়ে তিনজন আহত হয়েছে। আহতদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।