সতর্ক চট্টগ্রাম, নগরীর ৫ প্রবেশমুখে সতর্ক প্রহরা, গলিতে টহল

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় চট্টগ্রাম নগরী পাঁচ প্রবেশপথ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সোমবার রাত ১০টা থেকে এসব প্রবেশপথ বন্ধ করে দেয় চট্টগ্রাম নগর পুলিশ (সিএমপি)। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত এসব পথ দিয়ে জরুরি সেবা ও পণ্য পরিবহন ছাড়া আর কোন ব্যক্তি বা পরিবহন প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করে দেওয়া এই পাঁচ প্রবেশপথ হচ্ছে নগরীর সিটি গেইট, শাহ আমানত সেতু, কালুরঘাট সেতু, কাপ্তাই রাস্তার মাথা ও অক্সিজেন মোড়।

সোমবার বিকেলে সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান নিজ ক্ষমতাবলে এই আদেশ জারি করেন। ঘোষণা বাস্তবায়নে প্রতিটি প্রবেশমুখে ২ প্লাটুন করে পুলিশ ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় থানাগুলোর টহল টিমগুলোও তাদের সাথে কাজ করছে।

এছাড়া পরিস্থিতি মোকাবেলায় আরও কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে সন্ধ্যা ৬টার পর ওষুধের দোকান ছাড়া সব ধরনের দোকান বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। যে কোন ধরনের যানচলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে শহরের মধ্যেও।

বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নেজাম বলেন, ৫টি প্রবেশ পথের একটি আমাদের থানা এলাকায় পড়েছে। রাত ১০টায় রোড ব্লকার দিয়ে সেটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ওষুধ, খাদ্য, জরুরি পণ্যবাহী পরিবহন, রপ্তানি পণ্যবোঝাই পরিবহন ও রোগী নিয়ে অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া অন্য কোনো গাড়ি আমরা শহর থেকে ঢুকতেও দিচ্ছি না, আবার বেরুতেও দিচ্ছি না।

‘এর বাইরে সন্ধ্যার পর সব দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছি আমরা। রাস্তায় গাড়ি চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। আমাদের নিয়মিত টহল আরও জোরদার করা হয়েছে। গলিতে গলিতে টহল দেয়া হচ্ছে। রাস্তায় কাউকে দেখলেই জিজ্ঞাসাবাদ করছি আমরা। এসব কাজ তদারকিতে প্রতিটা থানায় একজন করে সিনিয়র অফিসারকেও দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। থানায় সশরীরে থেকে এসব কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি’— যোগ করেন ওসি নেজাম উদ্দিন।

এ প্রসঙ্গে সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বলেন, ‘আশপাশের উপজেলা থেকে প্রতিদিন লোকজন চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশ করছেন। এটি খুব ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়। তাই আপাতত পাঁচটি প্রবেশ পথ আমরা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সেখানে পুলিশের নিরাপত্তা চৌকি স্থাপন করা হয়েছে। এসব প্রবেশপথে মানুষের চলাচলও সীমিত থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া নগরীতে কেউ প্রবেশ কিংবা বের হতে পারবে না। সন্তোষজনক জবাব দিতে পারলে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে।’

রোববার (৫ এপ্রিল) রাতে সিএমপি জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে সোমবার থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা থেকে পরদিন সকাল ৬টা পর্যন্ত নগরীতে ওষুধের দোকান ছাড়া সব দোকানপাট বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।