মহেশখালীতে সুন্নী নামধারী সন্ত্রা, সীদের হাম *লায় মাদ্রাসা শিক্ষক আ*হত

মোরশেদ আলমঃ সন্ত্রা সীদের হাম লার শিকার হয়েছে মহেশখালী থানার দক্ষিন মিয়াজীর পাড়া মাতার বাড়ি গ্রামের শাহ মজি দিয়া মাহামুদিয়া এবতেদায়ী মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মৌলানা মোহাম্মদ মহশীন(৪০)।

শুক্রবার সকাল ১১ঃ৩০ টার দিকে সুন্নী নামধারী স ন্ত্রা সী গ্যাং য়ের ৫ জন তার বসবাসরত মাতারবাড়ি ইউনিয়নের মাইজ পাড়ায় এসে পূর্বপরিকল্পিত তার উপর হিংস্র অমা নবিক হা মলা চালায়।

হাম লাকা রীরা হল একই গ্রামের আতিক রেজা, সেলিম, মিনহাজুল আবেদীন, তৌফিকুল ইসলাম, ও সাখাওয়াত রেজা।

অা হত মৌঃ মোঃ মহশীন বলেন, অাগে থেকেই এসব ব্যক্তিসহ এদের গ্যাংয়ের আরো অনেকের হু মকির সম্মুখীন হয়ে আসছিলাম। তাই সাবধানতা বশত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করে গত ২২/০৪/২০২০ তারিখে থানায় সাধারণ ডায়েরিও করে থাকি। কিন্তু এসব সন্ত্রা সী রাষ্ট্রের আইনব্যবস্থাকে তোয়াক্কা না করে ফেইসবুকে আমাকে খু ন গু মের হু মকি দিয়ে পোস্ট দিতে থাকে৷ আমি সমস্ত প্রমাণাদি সংরক্ষণ করেছি এবং পুলিশের কাছেও জমা দিয়েছি।

তিনি অারো বলেন, সকালে আমি যখন আমার স্থানীয় এলাকায় ছিলাম তখন হঠাৎ করে এসব সন্ত্রা সীরা এসে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ ও লাঠি সোঁটা নিয়ে হাম লা করে। সবচেয়ে বিস্ময়কর ব্যাপার হচ্ছে এই সন্ত্রা সী জ ঙ্গি ভাবাপন্ন ব্যক্তিরা আমাকে মেরে আবার নিজেরাই ফেইসবুকে মিথ্যাচারমূলক পোস্ট দিয়ে সবাইকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আপনারা যদি এসব ব্যক্তির ফেইসবুক প্রোফাইল ঘেঁটে দেখেন তবে সেখানে স্পষ্ট দেখতে পাবেন যে এরা আমাকে খু ন জবা ই সহ বিভিন্ন হু মকি দিয়ে পোস্ট কমেন্ট পাবলিশড করে রেখেছে। কী ভ য়ংক র অমানুষ হিং স্র হলে এরা এমনভাবে প্রকাশ্যে হুম কি দিতে পারে!

পারিবারিক ও স্হানীয় সূত্রে জানা যায়, মৌঃ মোঃ মহশীন ইসলামের মূলধারা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের একজন কর্মী। কক্সবাজার মহেশখালীর মাতার বাড়ি ইউনিয়নে সুন্নীয়তের খেদমতে দীর্ঘসময় ধরে কাজ করে আসছেন। অত্র এলাকায় সুন্নী আকিদার সকলেই থাকে চিনেন। অত্র এলাকায় একটি মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে দায়িত্বরত আছেন। সুন্নীয়তের প্রতি তার আপোষহীন আদর্শিক অবস্থানের কারণে থাকে অাজ হা মলার শিকার হতে হলো।

এই ব্যাপারে মহেশখালী থানার মাতারবাড়ি ক্যাম্পের অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বলেন, আমরা মৌঃ মোঃ মহশীনের অভিযোগ অামলে নিয়েছি, যত দ্রুত সম্ভব সটিক তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনব।