বিয়ের জন্য পরহেজগার-স্বামীভক্ত মেয়ে খুঁজছেন শাকিব খান

বিয়ে করার জন্য মেয়ে খুঁজছেন নায়ক শাকিব খান। তবে, মেয়েকে অবশ্যই হতে হবে নামাজি, সংসারী এবং স্বামীভক্ত। পছন্দ মতো মেয়ে পেলে তিনি এ বছরই বিয়ে করবেন বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

এদিকে, নায়িকা বুবলিকে জড়িয়ে যে গুঞ্জন ছড়িয়েছে, তা উড়িয়ে দিয়েছেন শাকিব খান। কেমন মেয়ে বিয়ে করতে চান? জানতে চাইলে তিনি জানান, এমন মেয়েকে বিয়ে করতে চাই যে পরহেজগার, সংসারী এবং স্বামীভক্ত। সারাদিন কাজ শেষ করে বাসায় ফেরার পর স্ত্রী আমার সব রকমের খেয়াল রাখবে এমন মেয়েকে বিয়ে করতে চাই।

বিয়ে কবে করবেন, প্রশ্নের উত্তরে শাকিব বলেন, ‘আর দেরি করব না, তাড়াতাড়িই শুভ কাজটা সেরে ফেলতে চাই, সম্ভব হলে এ বছরই বিয়েটা করে ফেলব, না হলে দুষ্টু মানুষের যন্ত্রণায় দেখা যাবে বিয়েটাও আর করা হবে না। পারিবারিকভাবে আমি আমার বিয়েটা করতে চাই।

বুবলি প্রসঙ্গে শাকিব খান সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘বুবলি শিক্ষিত মেয়ে তার পরিবারও শিক্ষিত এবং সম্ভ্রান্ত। তাকে নিয়ে যেসব ঘটনার জন্ম হচ্ছে সেটি সত্য না। মূলত আমার স্টারডাম নষ্ট করার জন্য এমন খবর প্রকাশ হচ্ছে। বিয়ে বা সন্তান হওয়ার যে খবর বাতাস ভারী করছে তা অমূলক ও ভিত্তিহীন।

বুবলি আমার ভালো বন্ধু এবং কো-আর্টিস্ট ছাড়া আর কিছুই নয়। আমরা একসাথে জুটি বেঁধে অভিনয় করে একের পর সুপারহিট সিনেমা উপহার দেওয়ার কারণে হয়তো এই অপপ্রচার চালনা হচ্ছে। আমাদের জুটিটি নষ্ট করার জন্যও হতে পারে!

শাকিব খান আরও বলেন, আসলে আমার স্টারডাম যখনই শুরু হয়েছে তখন থেকে কিছু ঈর্ষাপরায়ণ মানুষ আমার ক্যারিয়ার ধ্বংস করার জন্য লেগেছে। তারা আমাকে ঘিরে নানা ইস্যু তৈরি করে আমার ক্যারিয়ার ধ্বংস করতে চায়। এছাড়া আর কিছু নয়।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল বিকেলে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে বিয়ে ও সন্তানের ব্যাপারে প্রথম মুখ খোলেন অপু। এরপর শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের সম্পর্কের টানাপোড়েন তৈরি হয়।

২২ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে শাকিব খান তালাকের জন্য আবেদন করেন। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে এই দম্পতির তালাক হয়ে যায়। এরপরই বুবলিকে ঘিরে শাকিব খানকে নিয়ে গুঞ্জন আরও চাউর হয়।