ফেনী জেনারেল হাসপাতালে পরীক্ষামুলক দর্শনার্থী পাশ কার্ড চালু

ফেনী জেনারেল হাসপাতালে দর্শনার্থী পাশ কার্ড পরীক্ষামূলক চালু

২৫০ শয্যা ফেনী জেনারেল হাসপাতালে দর্শনার্থীদের পাশ কার্ড গতকাল মঙ্গলবার পরীক্ষামুলকভাবে চালু করা হয়েছে। ২০২০ সালে প্রথম সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে পাশ কার্ড চালু হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আবু তাহের পাটোয়ারী।

গতকাল ফেনী জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, নতুন ভবনের একটি ও পুরাতন ভবনের সবকটি গেইট বন্ধ করে একটি করে গেইটে দায়িত্বরত সিকিউরিটি গাড পাশ কার্ড চেক করে ভর্তি হওয়া রোগীর সাথে একজন করে স্বজন ভিতরে প্রবেশ করাচ্ছে। এ কার্ড চালুর ফলে কোন ওয়ার্ডে অন্যান্যদিনের মত কোন ঝামেলা নেই।

হাসপাতালের আরএমও ডা. আবু তাহের পাটোয়ারী জানান, পাশ কার্ড পুরো দমে চালু হলে হাসপাতালের ভিতরে কোন হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ঔষধ কোম্পনির প্রতিনিধি এমনকি ঔষধ দোকানের দালাল প্রবেশ করতে পারবেনা। এতে করে ঝামেলাবিহীন সেবা প্রদান করা যাবে। আগের তুলনায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবে।

আরএমও আরো জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক প্রথম দুটি জেলা একটি মাগুরা ১শ শয্যা সদর হাসপাতাল, অপরটি ফেনী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে রোগীর সাথে একজন স্বজন থাকার দর্শনার্থী প্রবেশে পাশ কার্ড চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সুফল পাওয়া গেলে পর্যায়ক্রমে অন্য জেলার বড় হাসপাতালগুলোতে পর্যায়ক্রমে এটি চালু করা হবে।

জানা গেছে, দর্শনার্থী পাশ ছাড়া ওয়ার্ডে কেউ অবস্থান করতে পারবেনা। একজন রোগীর সাথে একজন স্বজন ভর্তি হওয়ার সময় একটি ১শ টাকা দিয়ে পাশ কার্ড সংগ্রহ করবে। রোগীকে হাসপাতালের ছাড়পত্র প্রদান করা হলে দর্শনার্থী কার্ড জমা দিয়ে ১শ টাকা ফেরত দেয়া হবে। দর্শনার্থী পাশ হারিয়ে গেলে বা ফেরত না দিলে সংগ্রহের সময় জমার টাকা ফেরত পাওয়া যাবে না।

সূত্র আরো জানায়, পাশ ছাড়া রোগী দেখার সময় শীতকালীন বিকাল ৩টা থেকে বিকাল ৫টা ও গ্রীস্মকালীন সময় বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। হাসপাতালে কর্মরত সকল স্টাফগণ আলাদা বিশেষ পাশ ব্যবহার করবে। এছাড়া হাসপাতালের রোগীদের জন্য বিশেষ নির্দেশনাবলী সাঁটানো হয়েছে। প্রতিটি সিটের পাশে কেবিন ও সিট ভাড়ার তালিকা দেয়া হয়েছে।

ডা. আবু তাহের পাটওয়ারী জানান, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ২০২০ সালের বছরের প্রথম সপ্তাহে যে কোনদিন পাশ কার্ডের উদ্বোধন করবেন ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেনারেল হাসপাতাল পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিজাম উদ্দিন হাজারী।