দাগনভুঞাতে করোনা প্রতিরোধে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে ওসি আসলাম শিকদার

মোহাম্মদ হোসেনঃ মানব সেবাই পরম ধর্ম। পৃথিবীর প্রতিটি ধর্মেই মানব সেবার কথা বলা আছে। অনেকের মতে মানব সেবার মাঝেই সৃষ্টিকর্তাকে পাওয়া যায়। এ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। যেখানে পরিবারের সদস্য আত্মীয়-স্বজন পাড়া-প্রতিবেশী করোনাভাইরাস রোগী এবং লাশ রেখে পালিয়ে যাচ্ছে সেখানেই বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা ঐসকল মৃত মানুষের জানাজা এবং দাফনের কাজ করছে।

দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ আসলাম সিকদার বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত সদস্য, অধ্যাবসায়ী, সৎ, দূরদৃষ্টি সম্পন্ন, বিচক্ষণ এবং মানবিক। তার কাছে দেখেছি আইন,শৃঙ্খলা মানবতা আর মমতাই জীবনের এক নিদর্শন ।

দাগনভূঞা থানায় আসার পর থেকে মা দক দ্রব্য বাণিজ্য এবং সেবন নিয়ন্ত্রন, নারী নি র্যা তন , চাঁদাবাজ রোধ, বাল্যবিবাহ রোধ থেকে শুরু করে যেখানেই আইন শৃঙ্খলা অবক্ষয় সেখানেই আসলাম সিকদার।

এই আসলাম সিকদার কে দেখেছি গরীব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে। গরীব অসহায় অথবা কোন নির্যাতিত ব্যক্তি দাগনভূঞা থানায় গিয়ে খালি হাতে ফিরেনি।

বিশ্বব্যাপী এ ক্লান্তিলগ্নে ‘করোনা মোকাবেলায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ, গণসচেতনতা সৃষ্টি ও বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে থাকা যাচাইকরন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন।

উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে আনাচে কানাচে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারী আদেশ মেনে চলার জন্য কঠোর ভাবে নির্দেশনা প্রদান করে দিন রাত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন ।

নিজস্ব তহবিল থেকে দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। এছাড়াও কর্মহীন মধ্যবিত্ত পরিবারের কল ফেলেই সাথে সাথে ত্রাণ সহায়তা দেয়ার চেষ্টা করছেন।